Articles

ব্যবসার জন্যে ওয়েবসাইট তৈরি করার ৮ টি উপকারিতা – Youth Carnival

বর্তমান প্রযুক্তির যুগে আপনার ব্যবসার জন্যে যদি ওয়েবসাইট না থাকে, তাহলে সেই ব্যবসার কোনো পরিচিতি নেই বললেই চলে। আমরা সকলেই জানি, যেকোনো ধরনের ব্যবসার জন্যেই ওয়েবসাইট জরুরি। কারন, ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনি ক্রেতা তৈরী করতে পারবেন ও রেভিনিউ বৃদ্ধি করতে পারবেন।

আপনার ব্যবসাকে ডিজিটালাইজড করতে হলে, ওয়েবসাইট তৈরি করা প্রয়োজন। ওয়েবসাইট হচ্ছে একটি ডোমেইন দ্বারা পরিচালিত কিছু কন্টেন্ট সম্বলিত কয়েকটি ভার্চুয়াল পেইজের সমষ্টি। কিছু কিছু কোম্পানি তাদের পুরো ব্যবসাই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে চালায়।  আজকে আমরা কথা বলবো ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট এবং ডিজাইনের এমন ৮ টি উপকারিতা সম্পর্কে, যেগুলো আপনার ব্যবসার জন্যে ওয়েবসাইট তৈরি করতে আগ্রহ করবে।

Source:multi-quiz.com

খুবই কম খরচে ওয়েবসাইট তৈরি ও নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন

আপনার ব্যবসার জন্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি মার্কেটিং পদ্ধতি হচ্ছে ওয়েবসাইট তৈরি করা। ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ব্যবসার লাভ বৈ ক্ষতি হবে না। একটি ওয়েবসাইট ডেভেলপ ও নিয়ন্ত্রণ করাটা যেমন সহজ, তেমনি এর খরচও অনেক অল্প।  আপনি হয়তো আপনার ব্যবসার প্রচার করার জন্যে অনেক পদ্ধতিই অবলম্বন করছেন। কিন্তু একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ব্যবসার, ক্রেতা ও বিক্রি যে কী পরিমাণ  বৃদ্ধি পাবে, সেটা হয়তোবা আপনার ধারনার বাইরে। যদি আপনার ওয়েবসাইট সঠিকভাবে ডেভেলপ এবং কন্ট্রোল করা হয়, তাহলে ক্রেতাদের কনভার্সন রেট অবশ্যই বৃদ্ধি পাবে।

Source:syscryption.com

মার্কেটিংয়ের সবচেয়ে উপযুক্ত মাধ্যমগুলোর একটি

আপনার ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই আপনি ঘরে বসে যেকোনো কিছু বিক্রি করতে পারছেন। এতে করে আপনার ক্রেতা সময়মতো পণ্য ক্রয় করতে পারছে। তাছাড়া ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ব্যবসা সম্পর্কে আরো অনেক মানুষ জানতে পারবে, যার ফলে আপনার ক্রেতার সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। বর্তমানে বেশিরভাগ মানুষই এখন ঘরে বসে শপিং করতে পছন্দ করে। তাই, আপনার ব্যবসার জন্যেও ওয়েবসাইট তৈরী করতে পারেন, যা আপনাকে ঝামেলা ছাড়াই ঘরে বসে ব্যবসা করতে সাহায্য করবে। তাছাড়া যেকোনো ওয়েবসাইট থেকেই এখন বিভিন্ন সিস্টেমে রেভিনিউ আয় করা যায়।

Source:silvacreate.com

২৪ ঘন্টাই ব্যবসা করতে পারবেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে

যেকোনো জায়গায় বসেই ব্যবসা করতে পারছেন আপনি। কেননা আপনার ওয়েবসাইটের সার্ভার ২৪ ঘন্টাই চলছে। আপনার ওয়েবসাইটকে আপনি স্মার্টফোন দিয়েই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। যার ফলে আপনি যখন ইচ্ছে যেকোনো স্থানে বসেই আপনার ব্যবসা চালাতে পারবেন। যার ফলে ২৪ ঘন্টাই একটিভ থাকার কারণে আপনার ক্রেতার সংখ্যা ক্রমশ বাড়তে থাকবে এবং আপনার ব্যবসার খবর  আরো বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাবে।

Source:checksite.ca

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি অন্যান্য ডিজিটাল মার্কেটিং মেথড এপ্লাই করতে পারবেন

শুধুমাত্র ফিজিক্যাল বা অফলাইন মার্কেটিং দ্বারা, বর্তমানে কোনো ব্যবসার উন্নতি হয় না। মার্কেটিং দুই প্রকার,  অফলাইন বা ফিজিক্যাল এবং অনলাইন বা ডিজিটাল মার্কেটিং। ডিজিটাল মার্কেটিং ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি আপনার ব্যবসাকে আরো বেশি মানুষের পৌছে দিতে পারবেন, কম সময়ে ও কম খরচে মার্কেটিং করতে পারবেন, ঝামেলাবিহীনভাবে ঘরে বসেই মার্কেটিং করতে পারবেন এবং আরো হাজারটা মেথডে আপনার ব্যবসাকে পৌঁছিয়ে দিতে পারবেন নির্দিষ্ট ক্রেতাদের কাছে। কয়েকটা ডিজিটাল মার্কেটিং মেথড হচ্ছেঃ এসইও, এসইএম, কন্টেন্ট মার্কেটিং ইত্যাদি। এসব মার্কেটিং মেথডের জন্যে আপনার প্রয়োজন হবে একটি ওয়েবসাইটের। তাই, যদি আপনার ব্যবসার একটি ওয়েবসাইট থাকে তাহলে আপনি আরো অনেক মার্কেটিং মেথড ট্রাই করতে পারবেন।

Source:atis.al

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ব্যবসাকে একটি ব্র্যান্ডে পরিণত করতে পারবেন

ওয়েবসাইট শুধু আপনার ব্যবসাকে ডিজিটালাইজড করতে কিংবা মার্কেটিং এ সাহায্য করবে না, বরং একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ব্যবসাকে আপনি একটি ব্র্যান্ডে পরিণত করতে পারবেন।  আপনার ওয়েবসাইট যদি ব্র্যান্ড হয়ে যায় তাহলে আপনার ওয়েবসাইটের প্রতি মানুষের বিশ্বাসও বৃদ্ধি পাবে। যার ফলে আপনার আয় বেশি হবে এবং অধিক সংখ্যক ক্রেতার কাছে পৌঁছাতে পারবেন।

Source:elite-strategies.com

যেকোনো অফার কিংবা ছাড় সম্পর্কে সরাসরি জানাতে পারবেন ওয়েবসাইটের মাধ্যমে

অফলাইন মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে, যেকোনো ছাড়ের সংবাদ আপনার ক্রেতাদের জানাতে চাইলে, আপনাকে হয় পোস্টার ব্যবহার করতে হবে নাহয় অন্য যেকোনো অফলাইন মার্কেটিং মেথড ব্যবহার করতে হবে, যা সময়সাপেক্ষ এবং ব্যয়বহুল। কিন্তু, আপনার ব্যবসার যদি একটি ওয়েবসাইট থেকে থাকে তাহলে আপনি যখন ইচ্ছে ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই আপনার সকল ক্রেতাদের জানাতে পারবেন অফার এবং ছাড় সম্পর্কে। এতে আপনার অর্থ ও সময়ের অপচয় হচ্ছে না।

Source:concerninfotech.com

ক্রেতাদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবেন

আপনার ব্যবসার যদি কোনো ওয়েবসাইট থাকে, তাহলে সেটার মাধ্যমে আপনি সরাসরি ক্রেতাদের সাথে ঘরে বসেই যোগাযোগ করতে পারবেন। এতে করে ক্রেতাদের সাথে আপনার ভালো সম্পর্ক গড়ে উঠবে এবং একজন ক্রেতাও যেকোনো জায়গায় থেকে আপনার ব্যবসা ও এর পণ্যগুলো সম্পর্কে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবে। আপনি যদি আপনার কোনও পণ্যের উপকারীতা সম্পর্কে ক্রেতাদের জানাতে চান তাহলেও আপনি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সেটা সহজেই জানাতে পারবেন।

Source:salesforce.com

সারাজীবন একটি ওয়েবসাইট থেকেই আপনি মার্কেটিং করতে পারবেন

অফলাইন মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে, বিজনেস কার্ড, পোস্টারিং সহ আরো যেসকল মেথড আছে সেগুলো দ্বারা আপনি একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্যে মার্কেটিং করতে পারবেন। তারপরে আপনাকে আবার সেগুলো তৈরী করতে হবে। কিন্তু ডিজিটাল মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে, একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই সবসময় আপনার ব্যবসার সকল পণ্যের বিজ্ঞাপন করতে পারবেন। ভবিষ্যতে যদি আপনার ব্যবসাকে আরো বিস্তৃত করার চিন্তা ভাবনা করে থাকেন সেক্ষেত্রেও পুরোনো ওয়েবসাইটটি দিয়েই আপনি কাজ চালাতে পারবেন।

Source:colorlib.com

 

বর্তমানে প্রত্যেকটি ব্যবসারই ওয়েবসাইট থাকা জরুরি। কারণ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ক্রেতার সংখ্যা বাড়বে। যত বেশি ক্রেতা, তত বেশি বিক্রি। আর যত বেশি বিক্রি, তত বেশি আয়।

Featured Image: cssluxury.com

Most Popular

Copyright © 2018 Do Magazine.

To Top